এখনো স্বাভাবিক হয়নি গুলশান এলাকার রেস্তোরা ব্যবসা

Comments are closed

পহেলা জুলাই গুলশানে হলি আর্টিজান রেকারীতে হামলার পর এখনো স্বাভাবিক হয়নি ঐ এলাকার রেস্তোরা ব্যবসা। বেশির ভাগ রেস্টুরেস্টে নেই ক্রেতা। ফলে লোকসান গুনতে হচ্ছে মালিকদের। তবে নিরাপত্তার সার্থে  আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে সকল প্রকার ব্যবস্থা।

বাংলাদেশের নৃশংসতম ঘটনাগুলোর মধ্যে অন্যতম আলোচিত ঘটনা গুলশান ট্রাজেডি। হামলা এক মাসের বেশী সময় পার হলেও এখনো স্বাভাবিক হয়নি  এ এলাকা। এখনো ফাঁকা এলাকার হোটেল-রেস্তোরাগুলো। ভোক্তা নেই তাই অলস সময় পার করছেন এসব রেস্তোরার কর্মীরা।

পহেলা জুলাইয়ের ওই হামলার পর এখানকার বিভিন্ন দূতাবাস ও হাইকমিশনগুলো তাদের নিজ নিজ দেশের নাগরিকদের চলাচলে সতর্কতা জারি করে। এরপরই মূলত ফাঁকা হতে থাকে রেস্টুরেন্টগুলো। তবে বিপরীতে কিছুটা বেড়েছে  পার্সেল বিক্রির হার। আর তাতেই এখনো টিকে রয়েছেন রেস্তোরা ব্যবসায়ীরা।

এদিকে, গুলশান হামলার পরপরই অবাসিক এলাকা থেকে সকল প্রকার বানিজ্যিক প্রতিষ্ঠান অপসারনের বিষয়ে উদ্যোগী হয়েছে সরকার। তবে ব্যবসায়ীরা বলছেন, সরকারের এই সিদ্ধান্তে ক্ষতির মুখে পড়বেন তারা।

এ বিষয়ে গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম , নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান। তবে সাধারণ মানুষের মধ্যে যে আতঙ্ক বিরাজ করছে তা কাটিয়ে উঠতে আরো কিছুটা সময় লাগবে বলে মনে করেন এ পুলিশ কর্মকর্তা।

রাজধানীবাসীর প্রত্যাশা খুব শিগগিরই আতঙ্ক কাটিয়ে আবারো স্বাভাবিক হবে গুলশানের এ এলাকা।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh