ডিরেক্টর্স গিল্ডের নির্বাচনে জমজমাট শিল্পকলা

Comments are closed

আগে যে কেউ চাইলে নিজেকে দাবি করেতেন পরিচালক, প্রযোজক কিংবা অভিনেতা। ফলে নাট্যকর্মীদের ন্যায্য পারিশ্রমিক থেকে শুরু করে বিশৃঙ্খলা ছিল নাট্যঙ্গনের সকল ক্ষেত্রে। সে পরিস্থিতির হয়তো অবসান হতে চলছে আজ। কারণ শিল্পকলায় মহাসমারোহে চলছে নাটক নির্মাতাদের সংগঠন ডিরেক্টস গিল্ডের প্রথম নির্বাচন।

সকাল থেকেই শিল্পকলা সরগরম নবীন-প্রবীণ নাট্যশিল্পীদের পদচারণায়। নির্বাচনের মূল লক্ষ্য নাট্যঙ্গনের প্রত্যেক ক্ষেত্রে সম্বনয় সাধন করা হবে,  পরিচালকসহ শিল্পী, কলাকুশলীদের সঠিক মূল্যায়ন নিশ্চিত করা হবে এমন প্রত্যাশা তাদের চোখে-মুখে।

গিল্ডের নির্বাচনে সবথেকে চোখে পড়ার মত ভোটারদের প্রায় শতভাগ উপস্থিতি।  প্রথম বাররে মত হলওে সবাই সকাল সকাল চলে এসছেনে পছন্দের নাট্য নেতা নির্বাচন করতে। নির্বাচনের মাধ্যমে নাট্যঙ্গনের প্রকৃত অভিভাবকরা নির্বাচিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তারা।

খুব সকালেই ভোট দিতে এসেছেন প্রবীন অভিনেতা মাসুম আজিজ। রেডিও ধ্বনিকে জানান,  ‌এরকমের একটি উদ্যোগ আসলেই প্রশংসনীয়। সকল অভিনেতা পরিচালকদের মিলনমেলা নাট্যজগতের জন্য সত্যিই আনন্দের।

কথা হলো সাংগঠনিক সম্পাদক পদপ্রার্থী ইমরাউল রাফাতের সঙ্গে। রেডিও ধ্বনিকে জানালেন দায়িত্ব পেলে যতরকমের অসুবিধা ও আসাম্যঞ্জস্য দূর করার প্রতিশ্রুতির কথা।

অন্যদিকে কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ইমেল হক বললেন একই কথা। জানালেন,‌ যেকোন জায়গাতেই পরিচয় সংকটে ভুগতে হয় আমাদের। পাশাপাশি পরিচালকদের পারিশ্রমিক নিয়েও সৃষ্টি হয় অসামঞ্জস্য। আশা করি এই নির্বাচনের মাধ্যমে এ সমস্যার উত্তরন হবে।

ডিরেক্টরস গিল্ডের এই নির্বাচনে সভাপতির পদে লড়ছেন অভিনেতা জাহিদ হাসান, গাজী রাকায়েত ও কায়েস চৌধুরী। আর, সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন নির্মাতা মোস্তফা কামাল রাজ ও এস এ হক অলিক।

নির্মাতা রাজ জানাচ্ছিলেন, নির্বাচন নিয়ে নিজের প্রত্যাশার কথা। জানালেন- সকাল থেকেই নির্বাচনের এমন আমেজ দেখে মনে হচ্ছে ঈদের মতো। অনেক প্রবীন নবীন পরিচালকদের সাথে দেখা হচ্ছে। এটা সত্যিই আনন্দের দিন। আর নির্বাচনী ইশতেহারে আমি বলে আসছি,যদি নির্বাচিত হই তাহলে পরিচালকদের জন্য একটি অফিস হবে। সেখানে স্টাডি রুম,থিয়েটার রুম থাকবে। পরিচালকরা একে অপরের কাজ নিয়ে আলোচনা করবে। নির্দিষ্ট নিয়মের মাধ্যমে পরিচালক সংগঠনকে আরও  সমৃদ্ধ করা।

নির্বাচনে সহ সভাপতি পদে লড়ছেন ৬ জন। তারা হলেন আকরাম খান, অরন্য আনোয়ার, কচি খন্দকার, চয়নিকা চৈাধুরী, শুভ্র খান, সৈয়দ শাকিল এবং সকাল আহমেদ।

সহ-সভাপতির পদে প্রতিদন্দ্বীতাকারী অভিনেতা কচি খন্দকার বললেন, অভিনয় পেশাকে আরও বেশি  সম্মানজনক করাই আমাদের নির্বাচনের লক্ষ্য। যেসব প্রতিশ্রুতি আমার দিচ্ছি তা বাস্তবায়নের শতভাগ চেষ্টা থাকবে আমাদের।

বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত চলবে ভোটগ্রহণ। এরপর শুরু হবে ভোট গননা। আনুষ্ঠানিক নির্বাচনের ফলাফল ঘোষনা করবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার ড. ইনামুল হক। তারপরই জানা যাবে- কারা নেতৃত্ব দিবেন ডিরেক্টরস গিল্ডকে।

জাকিয়া হিমু, নিউজ ব্রডকাস্টার, রেডিও ধ্বনি।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh