তরুণ পাঠকদের পছন্দের শীর্ষে ভিন্নধারার রহস্য ও কল্পকাহিনী

Comments are closed

মাস জুড়ে চলা অমর একুশে গ্রন্থমেলায় সাড়া জাগানো উপস্থিতি ছিল তরুণ-তরুণীদের। প্রযুক্তিতে অভ্যস্ত যুব সমাজের ঝোঁক কিছুটা ই-বুকের দিকে থাকলেও, কাগজে বইয়ের চাহিদা কমেনি এতটুকু। বিভিন্ন স্টল ঘুরে পছন্দের বই সংগ্রহ করেছেন তারা। পছন্দের শীর্ষে গোয়েন্দা রহস্য, মনস্তাত্বিক রহস্য ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর বইসমূহ। সেই সঙ্গে, অনুবাদ বইয়ের চাহিদাও ভালো। প্রকাশকরাও এধরনের বই প্রকাশে আগ্রহী হচ্ছেন। শিখা প্রকাশনীর প্রকাশক নজরুল ইসলাম বাহার জানান, যুব সমাজ এমনিতেই কল্পনাবিলাসী। তাই ভিন্নস্বাদের বই বাজারে আনতে আগ্রহী হচ্ছেন তারা।

মেলায় বই কিনতে আসা কয়েকজন পাঠক জানালেন, কল্পনা বাস্তব ও বিজ্ঞানের সমন্বয়ে লেখা বই পছন্দ তাদের। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নুসরাত শোভা বলেন, এধরনের বই কল্পনার জগত বিস্তৃত করে। তবে রোমাঞ্চকর অনুভুতি পেতে রহস্য কাহিনীর বই খুঁজছেন তার বান্ধবী সুমাইয়া জামান। বুয়েট শিক্ষার্থী নাঈমের পছন্দ গতানুগতিক ধারার বাইরে বিদেশী লেখকদের অনুবাদ বই। মেলার শেষ সপ্তাহে এসে পছন্দের বইগুলো সংগ্রহ করতে ব্যস্ত সময় কাটছে তাদের।

ভিন্ন ধারার রহস্য উপন্যাসের জন্য বরাবরই সেবা প্রকাশনীর বইয়ের প্রতি আগ্রহ বেশি স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের। এছাড়া মেলায় বেশ সমাদৃত হয়েছে ডাক্তার রাজীব হোসাইন সরকারের মনস্তাত্বিক রহস্য বই-অচিন পাখি। চাহিদার চাপ সামালাতে চারটি সংষ্করণ এসেছে বইটির। যারা একটু ভিন্নতা পছন্দ করেন তারাই সংগ্রহ করছেন বইটি। লেখকের সাথে কথা বলে জানা গেল, এটা তার লেখা দ্বিতীয় বই। দুই বছরের বিরতির পর মনস্তাত্বিক রহস্য বই- “অচিন পাখি” নিয়ে ফিরেছেন পাঠক নন্দিত হওয়া এই লেখক। জানান, আগামী বইমেলায় “প্রফেসর নাজীব” নামে সিরিজ বই নিয়ে নিয়মিত হবেন তিনি। এর আগে, ২০১৫ সালের বইমেলায় তার লেখা “মানবী মানবী” বেষ্ট সেলারের খেতাব পায়। মূলত তারপর থেকেই লেখকের বইয়ের অপেক্ষায় ছিলেন পাঠক।

বাংলা ভাষায় বিজ্ঞানের গল্প জনপ্রিয় করে গেছেন বিজ্ঞানী আবদুল্লাহ আল মুতি। তবে সায়েন্স ফিকশনকে জনপ্রিয় করেছেন মুহম্মদ জাফর ইকবাল। এবারও কিশোর তরুণদের পছন্দের তালিকায় ছিল প্রিয় লেখকের নতুন পুরনো বিভিন্ন বই। ভক্তরাও কাছে পেয়ে লাইন ধরে নিয়েছেন অটোগ্রাফ। তাঁর মতে, পৃথিবীর অনেক দেশের তুলনায় বাংলাদেশে সায়েন্স ফিকশনের জনপ্রিয়তা বেশি। তাই নতুন লেখকদের প্রতি বৈজ্ঞানিক কল্প কাহিনীর মতো ভিন্ন ধারার লেখা বাড়ানোর আহবান জানান তিনি।

এবার একুশে গ্রন্থমেলায় তিন হাজারের বেশি বই প্রকাশ পেয়েছে। এর মধ্যে মনস্তাত্বিক রহস্য, গোয়েন্দা কাহিনী ও বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনীর নতুন বই প্রকাশ হয়েছে ৩০টির বেশি।

 

সাখাওয়াত সুমন, ঢাকা।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh