তসলিমা নাসরীনকে নিয়ে চলচ্চিত্র নির্বাসিত মুক্তি

Comments are closed

তসলিমা নাসরীন ৭টি আত্মজীবনী লিখলেও এ প্রথম তার নির্বাসিত জীবন নিয়ে তৈরী হল কোন চলচ্চিত্র। তবে সাহসী এ পদক্ষেপটি নিয়েছে খ্যাতিমান অভিনেত্রী চুর্ণী গাঙ্গুলী। যার পরিচালনাও করেছেন চুর্নী নিজে। নির্বাসিত নামে এ চলচ্চিত্রটি কলকাতায় মুক্তি পেয়েছে আজ। নারীবাদী ও ধর্মীয় সমালোচনামূলক রচনা ছিল তার মূল উপজীব্য। লিঙ্গসমতা, মুক্তচিন্তা, ধর্মনিরপেক্ষ মানবতাবাদ ও মানবাধিকার প্রচার করতে গিয়ে তার লেখায় বেশ কিছু বিতর্কিত বিষয় চলে আসে। যার ফলে ধর্মীয় মৌলবাদী গোষ্ঠীদের রোষানলে পড়েন ও হত্যার হুমকি পেতে থাকায় ১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ ত্যাগ করেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ঘুরে এখন ভারতের কলকাতা তার নিবাসস্থল। এত পেছনের আলোচনায় না গিয়ে লেখিকার জীবনের একটি অংশ জানতে পারার সহজ উপায় নির্বাসিত চলচ্চিত্রটি। যেখানে উঠে এসেছে লেখিকার নির্বাসিত হওয়ার গল্প এবং তার পোষা বিড়াল মিনুর সাথে তার সাময়িক বিচ্ছেদের কথা। ছবিটি সম্পর্কে তসলিমা নাসরিন কলকাতার এক সংবাদপত্রকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তার জীবন নিয়ে এরআগে অনেকেই চলচ্চিত্র নির্মাণের আশ্বাস দিয়েছেন। তবে তারা সাহস করতে পারেন নি। তবে শেষ পর্যন্ত একজন নারীই সেই দুঃসাহস দেখিয়েছেন। এতেই তিনি সবচেয়ে বেশী খুশী।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh