নিয়মতি করদাতাদের বিশেষ সুবিধা দেয়ার প্রস্তাবনা

Comments are closed

নিয়মিত করদাতাদের আবারও বিশেষ সুবিধা দেয়ার ঘোষণা দিতে যাচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড –এনবিআর। মোট ১১ টি প্রস্তাব সুপারিশ আকারে এরইমধ্যে পাঠানো হয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়ে। যার মূল লক্ষ্য রাজস্ব খাতে করদাতার সংখ্যা বাড়ানো। সরকারী আয়ের প্রধান উৎস কর। রাষ্ট্রের উন্নয়নে কর প্রদান একটি অপরিহার্য  প্রক্রিয়া। গত পাঁচ করবর্ষ থেকে যে করদাতারা নিয়মিত রাজস্ব পরিশোধ করে আসছেন এমন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ১১ ধরনের বিশেষ রাষ্ট্রীয় সুবিধা দেয়ার কথা চিন্তা করছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড –এনবিআর। এরইমধ্যে এসব সুপারিশ প্রস্তাব আকারে পাঠানো হয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়ে। অর্থমন্ত্রীর অনুমোদন পেলেই শিগগিরই বাস্তবায়িত হবে এসব প্রস্তাব।

এসব সুপারিশের মধ্যে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে ব্যবসার লাইসেন্স প্রদান ও নবায়ন, বন্দরে বিশেষ চ্যানেল দিয়ে দ্রুত পণ্য খালাস, সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সরকারি চিকিৎসা ব্যয়, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অর্থনৈতিক অঞ্চলে প্লট বরাদ্দ, বাড়ি কিংবা ফ্ল্যাটের ইউটিলিটি সংযোগ সুবিধা এবং পরিবহনে চাহিদা অনুযায়ী টিকিট ও আসন বরাদ্দের সুপারিশ করা হয়েছে। নির্ধারিত সুদ হারের চেয়ে এক শতাংশ কম সুদ হারে ঋণ প্রদান, বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা ব্যয়ে বিশেষ ছাড়সহ সরকারি চাকরি পেতে এনবিআর থেকে অর্থমন্ত্রীর সই করা বিশেষ প্রত্যায়নপত্র প্রদানের প্রস্তাবও করা হয়েছে।

বর্তমানে সর্বোচ্চ রাজস্ব প্রদানকারী ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে রাজস্ব কার্ড দেয় এনবিআর। রাজস্ব পরিশোধকারীদের কী ধরনের সুবিধা দেয়া উচিত তা নিয়ে এর আগেও এনবিআরের আয়কর, শূল্ক ও মূসক বা ভ্যাট শাখা থেকে পৃথক পৃথক প্রস্তাব তৈরি করে এনবিআর চেয়ারম্যানের দপ্তরে জমা দেয়। মূলত রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা ও করদাতার সংখ্যা বাড়াতেই  এরূপ নতুন এসব প্রস্তাবনা করলো এনবিআর। এখন কেবল মন্ত্রণালয়ের সম্মতির অপেক্ষা।

চলতি অর্থবছরে ২ লাখ ৩ হাজার ১৫২ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে এনবিআর। যা চলতি অর্থবছরের সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা থেকে ৩৫ শতাংশের বেশি হবে বলেও আশা করছেন তারা।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh