পিনাক-৬ দুর্ঘটনার দুই বছর,অন্ধকারেই অভিযুক্তরা

Comments are closed

কাওড়াকান্দি-শিমুলিয়া নৌরুটে পিনাক-৬ লঞ্চ দুর্ঘটনার দু’বছরে বিচার হয়নি অভিযুক্তদের। আলোর মুখ দেখে নি মামলার তদ্ন্ত প্রতিবেদন। এতে হতাশ ও ক্ষুব্ধ নিহতদের স্বজনেরা।২০১৪ সালের ৪ আগস্ট। পদ্মার উত্তাল ঢেউয়ে ডুবে যায় পিনাক-ছয় নামের লঞ্চটি। শতাধিক যাত্রীবোঝাই লঞ্চটির কিছু যাত্রীর জীবন বাঁচলেও বেশিরভাগেরই হয় সলিল সমাধি। সরকারিভাবে, দুর্ঘটনায় ৪৯ জনের মরদেহ উদ্ধারের কথা বলা হলেও এখনো নিখোঁজ অন্তত ৬৪ জন। লঞ্চডুবির কারণ হিসেবে ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রীবহনসহ বেশ কিছু অভিযোগ মিলে। কিন্তু, দুই বছর পরও বিচার হয় নি দোষীদের।উদ্ধার হওয়া মরদেহের মধ্যে ২১ জনকে বেওয়ারিশ হিসেবে  মাদারীপুরের শিবচর পৌর কবরস্থানে দাফন করা হয়।দুর্ঘটনার পর, মুন্সীগঞ্জের লৌহজং থানায় ৬ জনকে আসামি করে মামলা হলে। পিনাক-৬ লঞ্চের মালিক কালু মিয়া ও তার ছেলে লিমন গ্রেফতারের কিছুদিন পরে বেরিয়ে আসেন জামিনে। বাকিরাও ধরা ছোঁয়ার বাহিরে। এতদিনেও আলোর মুখ দেখে নি দুর্ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh