বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে দেশকে পরনির্ভরশীল করতে চেয়েছিলো : ফরাস উদ্দিন

Comments are closed

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে কেবল স্বাধীনতার মূল চেতনাকেই নয়, দেশকে অর্থনৈতিকভাবেও পরনির্ভরশীল করে দেয়া ছিলো ষড়যন্ত্রকারীদের লক্ষ্য। স্বাধীন-সার্বভৌম  হিসেবে পৃথিবীর বুকে স্থান পাওয়া একটি নবীন দেশকে অঙ্কুরে বিনাশ করার মধ্য দিয়ে খুনিরা ভেবেছিলো চিরতরেই বুঝি হারিয়ে গেলো বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা। কিন্তু না, তাদের সে আশা আজ দুরাশায় পরিনত হয়েছে। তারই কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্থনৈতিক মুক্তির পথে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধুর একান্ত সচিব বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্ণর ড. মোহাম্মদ ফরাস উদ্দিন এমন মন্তব্য করেছেন।

১৭৫৭ সালে পলাশীর প্রান্তরে স্বাধীনতার সূর্য্য অস্তমিত হওয়ার মধ্য দিয়ে বাংলার আকাশ যে বিভীষিকাময় রাত্রির স্বাক্ষী হয়েছিল , তা আরো ভয়ঙ্কর হয়ে ফিরে এসেছিল ১৯৭৫ সালের ১৫- ই আগষ্ট। সেদিন ভোর রাতে রচিত হয় ইতিহাসের সবচেয়ে কলঙ্কতম অধ্যায়। নৃশংস ভাবে হত্যা করা হয় হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। সে সময় বঙ্গবন্ধুর একান্ত সচিব ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গর্ভনর ড. ফরাসউদ্দিন আহমেদ। তার মতে, বাংলাদেশ যে জাতীয়তাবাদের আদর্শ নিয়ে স্বাধীন হয়েছিল সেই আদর্শকে ধংস করতেই স্বাধীনতা বিরোধীরা আন্তর্জাতিক শক্তির হাত ধরে বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল।

ড. ফরাসউদ্দিন আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশের অর্থনীতিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করা হয়। তবে বর্তমান সরকার বঙ্গবন্ধুর দেখানো সেই পথেই এগুচ্ছে এবং ইতিমধ্যে সফল হয়েছে বলেও মনে  করেন সাবেক এই গর্ভনর।  তবে এখনো দূর্নীতি এবং ধনী-গরিবের মধ্যে যে বৈষম্য, তা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার পেছনে বাধা হয়ে দাড়িয়ে আছে। বঙ্গবন্ধুর আজীবন লালিত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে হলে এ বৈষম্য আর দুর্নীতি থেকে এখনই বেরিয়ে আসতে হবে বলে মনে করেন এ অর্থনীতিবিদ।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh