মানবতাবিরোধী অপরাধে সাবেক সাংসদের মৃত্যুদণ্ড

Comments are closed

মুক্তিযুদ্ধকালের মানবতাবিরোধী অপরাধে যশোরের সাবেক সাংসদ সাখাওয়াত হোসেনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। একই মামলায়, বাকি সাতজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তাদের বিরুদ্ধে পাঁচটি অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে। রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ সন্তোষ জানালেও উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানিয়েছে আসামিপক্ষ।

রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ট্রাইব্যুনাল ও আশপাশের এলাকায় জোরদার করা হয় নিরাপত্তাব্যবস্থা।  কিছুক্ষণ পর, নিয়ে আসা হয়, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাখাওয়াত হোসেন এবং বিল্লাল হোসেন বিশ্বাসকে। ৭৬৮ পৃষ্ঠার রায়ের সারসংক্ষেপ পড়া শেষে, সাজা শোনান বিচারপতি আনোয়ারুল হক নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বেঞ্চ। আসামিদের বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের আনা পাঁচ অভিযোগের সবগুলোই প্রমাণিত হয়। সাখাওয়াতকে মৃত্যুদণ্ড এবং অন্যান্য আসামিদের আমৃত্যু সাজার রায় দেন ট্রাইব্যুনাল। রায়ে সন্তোষ জানান ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটার জিয়াদ আল মালুম।

অন্যদিকে, আসামিপক্ষে আইনজীবী আব্দুস সাত্তার পালোয়ান বলেন, রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে। নিয়ম অনুযায়ী এক মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ আদালতে আপিলের সুযোগ পাবেন ট্রাইব্যুনালে দণ্ডিত আসামিরা। তবে পলাতকদের এ সুযোগ নিতে হলে আত্মসমর্পণ করতে হবে। ট্রাইব্যুনালে এ পর্যন্ত রায় আসা ২৫টি মামলার ৪৪ আসামির মধ্যে মোট ২৭ যুদ্ধাপরাধীর সর্বোচ্চ সাজার আদেশ হল।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh