‘রাজা টুটানখামুনের সমাধিতে গোপন কুঠুরি থাকার প্রমাণ মিলেছে’

Comments are closed

মিশরের প্রত্নতত্ত্ববিদরা জানিয়েছেন, রাজা টুটানখামুনের সমাধিতে তারা এমন একটি গোপন কুঠুরি থাকার প্রমাণ পাচ্ছেন যেখানে হয়তো রাণী নেফারতিতির কবর ছিল। যদি সত্যি সত্যি এরকম এক গোপন কুঠুরি খুজে পাওয়া যায় সেটা হবে শতাব্দীর সবচেয়ে বড় আবিস্কার বলে মন্তব্য করেছেন মিশরের প্রত্মতত্ত্ব বিষয়ক মন্ত্রী মাহমুদ আল ডামাটি। লাক্সারের এই অত্যন্ত প্রাচীন স্থানটিতে প্রত্নতত্ত্ববিদরা তাদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। সেখানে রাজা টুটানখামেনের সমাধির উত্তর দিকের দেয়ালের যে স্ক্যান করা হয়েছে, তা এখন জাপানের বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষা করে দেখছেন। নীল নদীর তীরে বিশ্বের সবচেয়ে সমৃদ্ধশালী যে সভ্যতা গড়ে উঠেছিল একটা লম্বা সময় ধরে তা শাসন করেছেন রাণী নেফারতিতি এবং তার স্বামী ফারাও আখেনাটেন। রাণী নেফারতিতি ছিলেন অসম্ভব সুন্দরী। কারও কারও ধারণা টুটানখামেন হয়তো রাণী নেফারতিতির সন্তান ছিলেন। টুটানখামেনের দেহাবশেষ সেখানে খুঁজে পাওয়া যায় ১৯২২ সালে। এর প্রায় তিন হাজার বছর আগে মাত্র ১৯ বছর বয়সে তার মৃত্যু হয় বলে ধারণা করা হয়।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh