স্টার ট্রেক বিয়ন্ড এখন ব্লকবাস্টারে

Comments are closed

যারা সায়েন্স ফিকশন, দেখতে ভালোবাসেন তাদের প্রিয় সিনেমার তালিকায় প্রথম দিকেই থাকবে স্টার ট্রেক। ১৯৬৬ সালে টিভি সিরিজের মাধ্যমে স্টার ট্রেকের যাত্রা শুরু। এরপর স্টার ট্রেককে অবলম্বন করে নির্মিত হয়েছে অসংখ্য টিভি সিরিজ। আর, ১৯৭৯ সালে মুক্তি পায় স্টার ট্রেকের প্রথম মুভি স্টার ট্রেক-দ্যা মোশন পিকচার।

এর আগে, সিরিজের ১২টি চলচ্চিত্র মুক্তি পায়। ৩ ভাগে সেগুলোর নাম- দ্যা অরিজিনাল সিরিজ,দ্যা নেক্সট জেনারেশন এবং দ্যা রিবোট সিরিজ। ২০০৯ সাল থেকে ছয়বছর অপেক্ষার পর, মুক্তি পেল রিবোট সিরিজের তৃতীয় কিস্তি স্টার ট্রেক বিওন্ড। জুলাইয়ের তৃতীয় সপ্তাহে সানডিয়েগো কমিক কনে সিনেমাটির প্রিমিয়ার হয়। এরই ধারাবাহিকাতায় ব্লকবাস্টার সিনেমাস-এ প্রদর্শণ শুরু হলো সাইফাই এই মুভিটির। যেমনটি জানাচ্ছিলেন, ব্লকবাস্টারের বিপনন কর্মকর্তা মো. আলমগীর আলম। জানান, দর্শকদের ভিন্নমাত্রার বিনোদন দেয়ার ক্ষেত্রে ব্লকবাস্টার সিনেমাস সবসময়ই নতুন কিছু করে। স্টার ট্রেকও সিরিজটি অতন্ত্য জনপ্রিয় মুভি সিরিজ। যারা  ইন্টারনেট মাধ্যমে ছবি না দেখে বড় পর্দায় দেখতে চায় তাদের জন্য এটি আসলেই ভাল লাগার বিষয়। আমারা আশা করি দর্শকরা পরিবারসহ এখানে এসে সস্তি পাবেন।

স্টার ট্রেকের এই মুভিটি নির্মাণ করেছেন ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস সিক্স-এর পরিচালক জাস্টিন লিন। ১৮ কোটি ৫০ লাখ ডলারের বিশাল বাজেটের এই সিনেমায় এবার খলনায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন  ইড্রিস অ্যালবা। আগের কিস্তির মতো এবারও ক্যাপ্টেন জেমস টি. কার্ক ও কমান্ডার স্পক চরিত্রে অভিনয় করেছেন ক্রিস পাইন ও জাকারি কিন্টো। আরও আছেন সিমন পেগ, জোয়ি স্যালডানা, কার্ল আরবান, জন চো ও অ্যান্টন ইয়েলচিন। এদের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন অভিনয়শিল্পী ইডরিস অ্যালবা ও সোফিয়া বুটেলা।

মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই মার্কিন বক্স অফিসে আধিপত্য বিস্তার করেছে ছবিটি। টপ চার্টে উপরের দিকে থাকলেও স্টার ট্রেক-সিরিজের আগের দুইটি সিনেমার চেয়ে আয়ের দিক দিয়ে এখনও খানিকটা পিছিয়ে স্টার ট্রেক বিয়ন্ড। তবে, এরই মধ্যে ঘোষণা এসেছে ১৪ তম স্টার ট্রেক সিনেমার। যেখানে ক্যাপ্টেন কার্ক-এর সঙ্গে দেখা হবে তার বাবার। এই ভূমিকায় দেখা যেতে পারে থর-খ্যাত অভিনেতা ক্রিস হেমসওয়ার্থকে।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh