স্বাস্থ্য সেবায় সহায়ক বেসরকারি খাত

Comments are closed

বাংলাদেশে স্বাস্থ্য সেবায় সরকারি খাতের পাশাপাশি কাজ করছে বেসরকারি খাত, বিভিন্ন এনজিও ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান। সরকারি খাতে, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় নীতি প্রণয়ন, পরিকল্পনা এবং ব্যষ্টিক এবং সামষ্টিক পর্যায়ে সিদ্ধান্ত গ্রহনের ব্যাপারে শীর্ষ প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করে। স্বাধীনতার পর হতে বাংলাদেশ স্বাস্থ্য সেবার উপর অনেক কাজ করেছে সরকার।

স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও প্রজনন স্বাস্থ্যসহ পরিবার পরিকল্পনার বর্তমান অবস্থা বিশেষ করে নারী, শিশু ও প্রবীণদের অর্থনৈতিক মুক্তি এবং শারীরিক, সামাজিক, মানসিক ও আত্মিক সুস্থতার ক্ষেত্রে টেকসই উৎকর্ষ সাধনই স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও জনসংখ্যা খাত সেক্টরের মূল লক্ষ্য। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রনালয়ের অধীনে জাতীয় স্বাস্থ্য নীতি, জাতীয় খাদ্য ও পুষ্টি নীতি এবং জাতীয় জনসংখ্যা নীতি বাস্তবায়িত হচ্ছে।

স্বাস্থ্য, পুষ্টি ও পরিবার পরিকল্পনা সেবায় গ্রাম ও শহর উভয় ক্ষেত্রে এনজিওগুলোর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। তারা মূলত: পরিবার পরিকল্পনা, মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে কাজ করে থাকে।

এদিকে, নারীর ক্ষমতায়ন বাড়ানোর পাশপাশি প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে সরকার বলে জানিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরিবার পরিকল্পনা কর্মসূচির সফল বাস্তবায়নের ফলে ২০১৫ সালের মধ্যে দেশে জনসংখ্যার উর্বরতার হার ‘প্রতিস্থাপন পর্যায়ে’ নেমে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন তিনি। এজন্য সারাদেশে ১২ হাজার কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

তবে বাংলাদেশের প্রজনন স্বাস্থ্য এবং পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক কর্মসূচি দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম সফল কর্মসূচি হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh