আবারও গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে তিতাস

Comments are closed

গ্যাসের দাম বাড়ানোর দশ মাসের মাথায় আবারও দাম বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে বিতরণকারী প্রতিষ্ঠান তিতাস। এমন প্রস্তাবাকে অমানবিক বলে মন্তব্য করেছেন সাধারণ মানুষ। অবশ্য,বাসাবাড়িতে ব্যবহৃত গ্যাসের দাম বাড়ানোর পক্ষে মত দিয়েছেন জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিশেষজ্ঞরা।

তবে, কারখানা ও সিএনজি গ্যাসের দাম বাড়ানোর ক্ষেত্রে সরকারের কার্যকরী পদক্ষেপ থাকা উচিত বলে মনে করেন তারা। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন- এরইমধ্যে গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিষয়ে গণশুনানী করেছে। যেখানে, তিতাসের পক্ষ থেকে প্রস্তাব করা হয়, বাসা বাড়িতে এক চুলার ক্ষেত্রে মাসিক ছয় শ টাকার জায়গায় এগার শ টাকা এবং দুই চুলার ক্ষেত্রে ১২শ টাকা করার। যা প্রায় বর্তমান দামের ১৪০ শতাংশ বেশি। গ্রাহকরা মনে করেন, একধাপে দাম এতটা বাড়ালে বাড়তি চাপে পড়বেন সাধারণ মানুষ।

এছাড়া, শিল্পে ৬২ শতাংশ, বাণিজ্যিকে প্রতিষ্ঠানে ৭২ শতাংশ এবং সিএনজিতে ব্যবহৃত গ্যাসের ক্ষেত্রে ৮৩ শতাংশ দাম বাড়ানোর প্রস্তাব করে তিতাস। এফবিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, শিল্পকারখানার গ্যাসের দাম বাড়ালে তার প্রভাব পড়বে উৎপাদত পণ্যের দামে। এমন পরিস্থিতিতে, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক বদরুল ইমাম মনে করেন, আবাসিকে গ্যাস ব্যবহারের ক্ষেত্রে ২৫ শতাংশ দাম বাড়ানো যেতে পারে। তবে, পরিবহন ও বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে ব্যবহৃত গ্যাসের দাম এখনই বাড়ানোর বিপক্ষে মত দেন তিনি। এদিকে, আবাসিকে পাইপলাইনের মাধ্যমে নতুন করে কোন গ্যাস সংযোগ না দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh