পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১৩

Comments are closed

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও টাঙ্গাইলে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ১৩ জনের প্রাণ হানি হয়েছে।  যাদের মধ্যে শুধু, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিহত হয়েছেন ৮ জন। আর টাঙ্গাইলে নিহত হন ৫ জন। দুটি দুর্ঘটনায় জখম হয়েছেন আরও ৩৩ জন। যাদের স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

কথা ছিলো ঈদের ছুটি শেষে কাজে ফেরার। নিরাপদে কর্মস্থলে পৌঁছেই ফোন করবে, বাড়িতে অপেক্ষায় থাকা চিন্তিত স্বজনদের। কিন্তু তা আর হলো কই। এক নিমেষেই যেন শেষ হয়ে গেলো, সব। ফেরার পথে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু মহাসড়কের কালিহাতী উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনা, কেড়ে নিল পাঁচটি তাজা প্রাণ। যেন ঈদের ছুটির সঙ্গে শেষ হলো জীবনের ছুটি।

নিহতরা হলেন, আছমা বেগম, আসাদুল হাবিব, রিপন, মমিনুর ও সুমন। যাদের সবার বাড়ি লালমনিরহাটে। কর্মস্থল ছিল, গাজিপুরের সফিপুরে। এদের মধ্যে ঘটনাস্থলেই নিহত হোন প্রথম ৪ জন। হাসপাতালে মারা যান সুমন। এতে আহত হয়েছেন, আরও ৩০ জন। যাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে, টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পরে, আহতদের দেখতে আসেন, টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মাহবুব হোসেন। ঘোষণা দেন নিহত প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে আর্থিক ক্ষতিপূরন দেয়ার।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাস ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেল ৭ জনের। নিহতদের সবাই মাইক্রোবাসের যাত্রী। পুলিশ বলছে, বিজয়নগরের ইসলামপুর এলাকায়, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাস ও মাইক্রোবাসের সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটে। ফলে, মহাসড়কটিতে প্রয় এক ঘণ্টা বন্ধ থাকে, যান চলাচল।

এরআগে গেল ১০ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইলে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়, শিশুসহ ৫ জন। ঈদের ছুটিতে ঘরে ফেরা বা নগরে ফেরা যাই বলিনা কেন। প্রতি বছরই যেন, এ ফেরায় কাল হয়ে আসে সড়ক দুর্ঘটনা।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh