সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য স্ট্যান্ডবাজি করেন কোন কোন মন্ত্রী: ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন

Comments are closed

কিছু কিছু মন্ত্রী সস্তা জনপ্রিয়তার জন্য স্ট্যান্ডবাজি করেন বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন। দুপুরে দীর্ঘ প্রতীক্ষিত মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের দ্বিতীয় অংশ উদ্বোধনের পর তিনি এ কথা বলেন।  মন্ত্রী বলেন, ফ্লাইওভারের কাজ সম্পূর্নভাবে শেষ হয়ে গেলে তা যানজট নিরসনে ভূমিকা রাখবে বলে। একই সঙ্গে  উড়ারসড়কের বাকি অংশগুলো  আগামী জুন-জুলাইয়ের মধ্যেই উদ্বোধন করা হবে বলেও আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

গত মার্চের ৩০ তারিখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করেন  উড়ালসেতুর মগবাজার মৈাচাক ফ্লাইওভার প্রকল্পের  হলি ফ্যামিলি থেকে সাতরাস্তার অংশটি। এরই ধারাবাহিকতায় আজ উদ্বোধন করা হলো ইস্কাটন থেকে  মগবাজার ওয়্যারলেসের এক কিলোমিটারের অংশটি। দুপুরে এর উদ্বোধন করেন এলজিআরডি মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন। এসময় তিনি এই উড়ালসেতুর  ফলে যানজট কিছুটা হলেও কমবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

তবে শুধু এক অংশের উড়ালসেতু নির্মান করে সম্পূর্ন যানজট নিরসন সম্ভব নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি। এসময় মন্ত্রী  আরো বলেন, মন্ত্রীদের গাড়ি ‍উল্টা পথে চললে যানজটের সৃষ্টি হয় এমন মন্তব্য সঠিক নয়।

এই সেতু উদ্বোধন করার বিষয়ে নিজেদের প্রতিক্রিয়া এভাবেই তুলে ধরলেন স্থানীয় ব্যবহারকারীদের অনেকেই।

তিন দফায় সময় বাড়ানোর পর এখন ২০১৭ সালের জুনের মধ্যে পুরো প্রকল্পের কাজ শেষ করার আশ্বাস দিয়েছেন ঠিকাদার কোম্পানী। মেয়াদ বাড়ার  কারণে সমান্তরালভাবে প্রকল্পের ব্যয়ও বেড়েছে প্রায় ৫৮ শতাংশ বাড়িয়ে এক হাজার ২১৯ কোটি টাকা।  অর্থ ব্যয় হলেও সত্যিকার অর্থে রাজধানীর যানজট কমাতে এই উড়াল সেতুটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখুক-এমনটাই প্রত্যাশা করেন সংশ্লিষ্টরা।

Comments are closed.

Web Design BangladeshWeb Design BangladeshMymensingh